আমি গু’ণ্ডা-মা’স্তান থেকে চেয়ারম্যান হয়েছি: যারা মাহিফল করছে তাদের খু’ন করবো , লা’শ ও পাবিনা: লাকসামের চেয়ারম্যান

হাসিবুর রহমান হুজুরের পেইজ থেকে:
গতকাল কুমিল্লা জেলার লাকসাম উপজেলায় গোবিন্দপুর ইউনিয়নের নারায়াণপুর গ্রামের মাহফিলে স্থানীয় ইউ/পি চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন শামীম-এর নেতৃত্বে তার গু’ণ্ডাবাহিনী আমার গাড়ি ভাং’চুর করে।

মাহফিলে আমার আলোচনা চলাকালীন স্ব’ঘোষিত এই গু’ণ্ডা চেয়ারম্যান তার স্ব’সস্ত্র গু’ন্ডাবাহিনী নিয়ে মাহফিলস্থলে এসে মাহফিলে গ’ণ্ডগোল সৃষ্টি করে। তারপর অ’কথ্য ভাষায় মাহফিলে আগত শ্রো’তাগণকে গা’লিগা’লাজ শুরু করে এবং আয়োজকগণকে হু’মকি দিয়ে বলতে থাকে- আমি গু’ণ্ডা-মা’স্তান থেকে চেয়ারম্যান হয়েছি।

যারা মাহফিল আয়োজন করেছ আমি তাদেরকে খু’ন করবো,কারো লা’শ খুঁজে পাওয়া যাবে না।তাদের ঘরবাড়ি ম’রুভূমি বানিয়ে দিবো।মায়ের পেট থেকে বের করে জ’বাই করবো–এরকম অ’কথ্য ও অ’শালীন কথাবার্তা বলতে থাকে। উপস্থিত হাজার হাজার জনতা ক্ষু’ব্ধ হয়ে গেলে পরিবেশ গোলাটে হওয়ার আ’শঙ্কা’য় আমি সাথে সাথে মোনাজাত দিয়ে মাহফিল শেষ করি।

অতঃপর আমি স্টেইজ থেকে নেমে নিরাপত্তার স্বার্থে পু’লিশে ফোন করে পু’লিশ প্র’টেকশন চাই। এরই মধ্যে স্ব’ঘোষিত এই গু’ণ্ডা চেয়ারম্যান তার লালিত পালিত গু’ণ্ডাদেরকে নিয়ে এলাকায় বিভিন্ন গাড়ি পু’ড়িয়ে দেয়াসহ মাহফিলে আগত বহু লোককে আ’ক্রমণ করেছে।

পু’লিশ আসতে আসতে তারা আমার গাড়িও ভাং’চুর করেছে। অবশেষে পুলিশের ভাইয়েরা আমাকে নিরাপত্তা দিয়ে আমার লোকজনসহ আমাকে নিরাপদ স্থানে পৌঁছে দিয়েছেন।

এমন জানোয়াররুপী লোকেরা জনপ্রতিনিধি হয় কী করে?এদেরকে কারা লালন-পালন করে?এরা মা’ফিয়াত’ন্ত্র ক্বায়েম করে জনগণের সেবক না হয়ে শোষকের ভূমিকায় অ’বতীর্ণ হয়েছে।

আমি,আমার ড্রাইভার ও আমার সফরসঙ্গীগণ নিরাপদ এবং ভালো আছি।দেশ-বিদেশের যারা আমাদের খোজ খবর নিয়েছেন তাদের সকলের প্রতি আমি কৃ’তজ্ঞতা জানাচ্ছি এবং সকলের কাছে দোয়া কামনা করছি।আমাকে নিরাপত্তা দেয়ার জন্য পু’লিশের ভাইদেরকে আমি কৃ’তজ্ঞতা জানাচ্ছি।

আমি উত্তম সবর অবলম্বন করলাম এবং আল্লাহর কাছে এসব গু’ণ্ডা-মা’স্তানদের উত্তম বি’চার কামনা করছি,নিশ্চয়ই তিনি উত্তম ফায়সালাকারী।