বাবার বাড়িতে বেড়াতে এসে দুই বোনের একসঙ্গে ‘আ’ত্ম’হ’ত্যা

বাগেরহাটের চিতলমারী উপজেলায় আড়ুয়া বর্ণি গ্রামে একসঙ্গে দুই বোন ‘বি’ষ’পানে ‘আ’ত্ম’হ’ত্যা করেছেন। মঙ্গলবার (২ মার্চ) রাতে ‘বি’ষ’পা’নের পর তাদের পার্শ্ববর্তী জেলা গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

বুধবার (৩ মার্চ) সকালে তারা ‘মা’রা যান। ‘মৃ’তরা হলেন-বৃষ্টি বেগম (১৯) ও প্রীতি বেগম (১৮)। তারা সম্পর্কে চাচাতো বোন।

চিতলমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর শরিফুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ ও নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, উপজেলার আড়ুয়া বর্ণি গ্রামের শামীমের স্ত্রী বৃষ্টি বেগম ও যশোর সদর উপজেলার দেলোয়ার খানের স্ত্রী প্রীতি বেগম উপজেলার কানন চক গ্রামে তাদের বাবার বাড়ি বেড়াতে আসেন।

মঙ্গলবার গভীর রাতে তারা দুজন প্রীতি বেগমের বাবার ঘরের মধ্যে ‘বি’ষ’পান করেন। পরিবারের লোকজন টের পেয়ে রাতেই তাদের গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। বুধবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা ‘মা’রা যান।

পরিবারের সদস্যরা জানান, দুজনে আপন চাচাতো বোন হলেও তারা বান্ধবীর মতো চলাফেরা করতেন। তাদের দুজনেরই একটি করে সন্তান রয়েছে। তবে কী কারণে ‘বি’ষ’পান করে ‘আ’ত্ম’হ’ত্যা করেছেন, তা জানা যায়নি।

‘আ’ত্ম’হ’ত্যা’র রহস্য উৎঘাটনের ‘পু’লি’শ ‘ত’দ’ন্ত করছে বলে জানান ‘ও’সি মীর শরিফুল হক।