জে’নে নিন চামড়ার ব্যাগ বা জুতায় ফা’ঙ্গাস পড়া ঠে’কানোর উপায়

প্রায় প্রত্যেকের ঘরেই চামড়ার তৈরি বিভিন্ন পণ্য থাকেই! যেমন- ব্যাগ, জুতা, বেল্ট ইত্যাদি মোটামুটি সবাই ব্যবহার করে থাকে। তবে এই বর্ষাকালে চামড়ার জিনিসের উপর সাদা দাগ প’ড়ে, যা ফাঙ্গাস বা ছত্রাক এর আনাগোনারই ই’ঙ্গিত।

বর্ষাকালে আপনার শখের এসব জিনিস এর চাকচিক্য যাতে ন’ষ্ট না হয় সেজন্য মেনে চলুন কয়েকটি বিষয়। এতে দীর্ঘদিন টেকসইভাবে সেগুলো ব্যবহার ক’রতে পারবেন-

> ফাঙ্গাস দেখা দিলে নরম সুতির কাপড় পানিতে ভিজিয়ে হালকা হাতে মুছে ফেলু। এর পুনরাবৃত্তি ঠেকাবার জন্য লেদার কন্ডিশনার দিতে ভুলবেন না। অনলাইনে কিনতে পারবেন। > ভেজা ভাব দেখা দিলে হ্যাঙ্গার এ ঝুলিয়ে রাখু’ন। বাতাসে শুকনো করাই সঠিক উপায়।

> চামড়ার কোনো পণ্য কোনো প্যাকে’টে ভাজ করে রাখবেন না। এতে ভাঁজ প’ড়ে এবং ভাঁজে’র কোণায় ছত্রাক এর বাসা তৈরি হতে পারে। > বেকিং পাউডার এর স’ঙ্গে এক চামচ পরিমাণ লেবুর রস মিশিয়ে একটা পেস্ট বানান।

সেটা আলতোভাবে বুলিয়ে দিন লেদার এর উপর। এবার অপেক্ষা করুন ১৫ মিনিট মতো। একটা ভেজা কাপড় দিয়ে সেই পেস্ট এর পরত তুলে ফেলুন সা’বধানে। তারপর শুকনো কাপড় দিয়ে সাফ করে নিতে হবে।

> চক পাউডার কিন্তু অত্যন্ত গু’রুত্ব পূর্ণ উপাদান চামড়ার পণ্য ভালো রাখতে। এজন্য প্রথমে ব্যাগ বা জুতা ভালো করে শুকিয়ে বেবি শ্যাম্পু দিয়ে সাফ করে নিন। এরপর শুকিয়ে চক পাউডার ছড়িয়ে দিতে হবে।

এটি সমস্ত আর্দ্রভাব শুষে নেবে ও চামড়ার তেলেও আনবে ভারসাম্য। > সিলিকা জে’ল ব্যাগে ক্যারি করা কিন্তু খুবই উপকারী। এটি রাখতে পারেন জুতার ভেতরেও। একদিকে এটা যেমন লেদারকে শুষ্ক রাখবে অন্যদিকে অনভিপ্রেত দুর্গন্ধ ও দূ’র করবে।

আর্দ্রতাও শুষে নিতে এটি অনেক উপকারী। > লেদার এর সব জিনিস নতুন এর মতো রাখতে ভিনেগার ব্যবহার করুন। সমপরিমাণে ভিনেগার ও পানি মিশিয়ে নরম তোয়ালে দিয়ে চামড়ার ব্যাগ বা জুতো মুছে দিতে পারেন।

শাইন ও মসৃণতা দুটোই বজায় থাকবে। > সুতোর কোনো রুমাল অথবা তোয়ালের উপর অল্প অলিভ অয়েল স্প্রে করে নিয়ে মুছে নিলেই চকচক করবে। এর অভাবে নারকেল তেল ও ব্যবহার করে দে’খতে পারেন।

> বৃষ্টিতে ব্যাগ ভিজে গেলে ব্যাগ এর ভেতরে নিউজপেপার দিয়ে মুড়ে রাখু’ন। এতে পানি শুষে নেবে কাগজ। এরপর এমন কোনো জায়গায় রেখে শুকনো করুন যেটা গরম। ওভেন বা চুলার পাশে রাখতে পারেন।

শুকনো করে নেয়া খুব জ’রুরি ধাপ নইলে পচন ধ’রে যেতে পারে। > বর্ষাকালে চামড়ার জুতার বদলে অন্য যে কোনো জুতা ব্যবহার করা উত্তম।