আজহারী, মামুনুল হক ও শায়খ আহমাদুল্লাহ’র কাছে খোলা চিঠি। কি লেখা ছিল তাতে!

প্রিয়, শায়খ মিজানুর রহমান আজহারী, শায়খ মুহাম্ম’দ মামুনুল হক, শায়খ আহমাদুল্লাহ, আমা’র সালাম এবং ভালবাসা নিবেন।আপনারা নিজেরা খুব ভাল করে জানেন, আল্লাহ আপনাদের একটি ক্ষমতা দিয়েছেন।

দেশের মানুষ আপনাদের কথা শোনে। আপনারা যাই বলেন, মানুষ সেটি মেনে চলার চেষ্টা করে।এটি আল্লাহ পাক প্রদত্ত একটি বিশেষ নেয়ামত।যে কথা বিশ্বের সর্বশ্রেষ্ঠ বিজ্ঞানী, মন্ত্রী, মিনিস্টার বললে, মানুষ শুনবে না, সে কথা আপনারা বললে মানুষ শুনবে। সারা পৃথিবী করো’নার কারণে দুর্বিসহ অবস্থার মধ্যে আছে।

বিশেষ করে, গত কয়েক দিনে বাংলাদেশের অবস্থা খুব শোচনীয় পর্যায়ে গিয়েছে। হাসপাতালগুলোতে জায়গা নেই। রোগী নিয়ে মানুষ এক হাসপাতাল থেকে অন্য হাসপাতা’লে ছুটছে।ডাঙ্গায় তোলা মাছ যেমন ছটফট করে ম’রে, তেমনি মানুষ শ্বা’সক’ষ্টে এম্বুলেন্সে মা’রা যাচ্ছে।এর পিছনে হয়তো অনেক কারণ আছে। মূল কারণ: মানুষের অসচেতনতা। সারা পৃথিবীর বাঘা বাঘা বিজ্ঞানীরা নানান পরাম’র্শ দিচ্ছেন।

ডাক্তাররাও অনুনয় করছেন। কিন্তু তাদের পরাম’র্শ আম’রা মানছি না।এ কথা বলতে দ্বিধা নেই, বাংলাদেশের মানুষ আপনাদের কথা আগ্রহ নিয়ে শোনে। কেবল শোনে না, তারা সেটি অক্ষরে অক্ষরে পালন করে। আপনারা কি তিনজন একই সাথে একটি কথা বলতে পারেন না, যাতে মানুষ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলে। একমাত্র আপনারা নির্দেশ দিলেই বাংলাদেশের বিপুল সংখ্যক মানুষ সেটি পালন করবে।

আমি একজন সামান্য লেখক। আমা’র পথ এবং আপনাদের তরিকা আলাদা। কিন্তু দিনশেষে আম’রা সবাই মানুষ, সবাই বাংলাদেশের নাগরিক। এই একটি বিষয়ে আম’রা কী’ একসাথে কাজ করতে পারি না? মানুষকে বলতে পারি না, আপনারা অযথা ঘরের বাইরে যাবেন না, হাত পরিষ্কার রাখবেন, মাস্ক পড়বেন?

পৃথিবীর সবচেয়ে সবচেয়ে বড় দুর্যোগে আপনারা যদি জো’রালো ভূমিকা না রাখেন, এই নালিশ আম’রা কার কাছে দেবো? আপনাদের তিনজনের প্রতি আমা’র বিনীত অনুরোধ, আসুন, একটা টিম করি। সেই টিমে আপনারা থাকুন, ডাক্তার থাকুন, বিশেষজ্ঞ থাকুন। এই টিমের কাজ হবে- জনসচেতনতা তৈরি করা। করো’নার মোকাবেলার জন্য অনেক টিকা বাজারে এসেছে। এসেছে নানান ওষুধ। তবে সবচেয়ে কার্যকরী যে দাওয়াই, সেটির নাম জনসচেতনতা।

একমাত্র মানুষ যদি সচেতন হয়, তাহলে করো’না মোকাবেলা করা যাবে। মানুষের হেদায়েত হলে আল্লাহ আমাদের রহম করবেন। আপনাদের তিনজনের কাছে আমা’র ফরিয়াদ, প্লিজ আপনারা এক যোগ করো’নার বি’রুদ্ধে জনসচেতনা তৈরিতে কার্যকর ভূমিকা নিন।

অশেষ শ্রদ্ধা।
বিনীত নিবেদক
আশীফ এন্তাজ রবি।

(লেখাটি ফেসবুক থেকে নেয়া)