নিউজিল্যান্ডে আকাশ পরিস্কার, তাই ক্যাচ ছেড়েছে বাংলাদেশ!

যে ঋতুই হোক, মিরপুরে খেলা হলে একটুআধটু ধোয়া-ধুলো দেখা যায় সবসময়ই। ম্যাচ চলাকালে ক্রীড়া চিত্রগ্রাহকদের ঘাম ঝরাতে হয় ঝকঝকে ছবি তোলার জন্য। তবে এই দূষিত বায়ু বোধহয় আশীর্বাদ ক্রিকেটারদের জন্য। তা না হলে পরিস্কার আকাশ তো আর ক্যাচ হাতছাড়ার কারণ হত না!

নিউজিল্যান্ডে হতাশার এক সফর শেষ করে দেশে ফিরেছে বাংলাদেশ দল। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে মোট ৬টি ম্যাচ খেলে সবগুলো ম্যাচে হেরে বসা টাইগাররা কাঠগড়ায় মাত্রাতিরিক্ত ক্যাচ হাতছাড়ার কারণে। দৃষ্টিকটু এসব ভুল মেনে নেওয়া একটু কঠিন। তাই মুণ্ডপাত হয়েছে স্বভাবতই।

রবিবার (৪ এপ্রিল) দেশে ফিরে বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন নিউজিল্যান্ড সফরে জাতীয় দলের হয়ে অভিষেক ম্যাচ খেলা স্পিনার নাসুম আহমেদ। এ সময় তিনি জানান, কী কী কারণে নিউজিল্যান্ডে ভালো করতে পারেনি টাইগাররা।

নাসুম বলেন, ‘কন্ডিশনে একটু সমস্যা ছিল। আমার মনে হয় আমরা উইকেটের দিক দিয়ে একটু পিছিয়ে আছি। কারণ আমাদের দেশের উইকেট আর ওখানকার উইকেট তো পুরোপুরি আলাদা। এদিক দিয়ে একটু পিছিয়ে আছি।’

উইকেট নাহয় অচেনা। বল তো আর নয়! ক্যাচ হাতছাড়ার কোনো ব্যাখ্যা হতে পারে কী? নাসুম বলেন,‘দেড়-দুই মাস ওখানে থাকলে আমাদেরও ফিল্ডিংয়ে উন্নতি হইতো। কারণ প্রথমত ওখানকার আকাশ অনেক পরিষ্কার। আর দ্বিতীয়ত ওখানে আবহাওয়া আমাদের আবহাওয়ার মতো না। পুরোপুরি আলাদা। আমাদের একটু সময় লাগতো। হয়তো যদি ১৫ দিন বা আরেকটু বেশি সময় ক্যাম্প করতে পারতাম, তাহলে আরেকটু ভালো হতো।’

তবে দিনশেষে যে এমন পারফরম্যান্সের কোনো যৌক্তিক ব্যাখ্যা নেই, তা-ও মেনে নিতে হয়। নাসুমের কণ্ঠেও তাই হতাশা, আক্ষেপ, অনুশোচনা।

‘আমি চেষ্টা করছি নিজের মতো। যেহেতু পেশাদার ক্রিকেটার, সবজায়গায় সবকিছুর সাথে মানিয়ে নিতে হবে। ব্যর্থতা বলতে… সত্য কথা বললে আমাদের দ্বারা হয়নি। আমরা যে খারাপ খেলছি বা… আমাদের দ্বারা হয়নি, এই আর কি। এর চেয়ে বেশি কিছু না।’</s– বলেন নাসুম।