তসলিমার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিচ্ছে মঈনের ম্যানেজমেন্ট প্রতিষ্ঠান

দুয়ারে কড়া নাড়ছে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) ১৪তম আসর। আর মাত্র একদিন পরই শুরু হচ্ছে আইপিএল। নতুন মৌসুমে চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে মাঠ মাতাতে দেখা যাবে মঈন আলিকে। জনপ্রিয় এই টি-টোয়েন্টি লিগ শুরুর আগে আলোচনায় ইংল্যান্ডের এই মুসলিম ক্রিকেটারের নাম।

চলতি সপ্তাহে ভারতীয় বেশ কয়েকটি সংবাদ মাধ্যমে জানায়, জার্সিতে মদ প্রস্তুতকারী স্পন্সর কোম্পানির লোগোসহ খেলতে নারাজ মঈন। তাই লোগোটি তুলে নিতে অনুরোধ জানিয়েছিলেন চেন্নাই সুপার কিংস কর্তৃপক্ষকে।

৩৩ বছর বয়সী এই তারকাকে সম্মান জানিয়ে সুপার কিংস কর্তৃপক্ষ তার দাবি মেনে নিয়ে লোগো তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় বলে সংবাদমাধ্যমে উল্লেখ করা হয়।

শেষ পর্যন্ত চেন্নাইয়ের দলটি অবশ্য জানায়, মঈনের পক্ষ থেকে এমন কোনও অনুরোধ করাই হয়নি।
এমন ঘটনায় দীর্ঘদিন ভারতে অবস্থানরত নির্বাসিত বাংলাদেশি লেখিকা তসলিমা নাসরিন টুইট করেন মঈনকে নিয়ে। স্পিনিং অলরাউন্ডারকে নিয়ে তিনি বলেন, ‘ক্রিকেটার না হলে সিরিয়া গিয়ে আইএস’এ নাম লেখাতেন মঈন আলি।’
এতেই রোষের মুখে পড়তে হয় তসলিমাকে। ইংল্যান্ডের হয়ে খেলা জফরা আর্চার, স্যাম বিলিংস, বেন ডাকেট, সাকিব-মাহমুদরা টুইটারে ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

নতুন খবরটি হচ্ছে, মঈন আলির ম্যানেজমেন্ট প্রতিষ্ঠান তসলিমার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিতে চলেছে। ক্রিকট্র্যাকার জানিয়েছে, অ্যাসেস মিডেল ইস্ট নামক ওই প্রতিষ্ঠানটি টুইটারে এক বিবৃতি প্রকাশ করেছে।

অ্যাসেস মিডেল ইস্ট বলছে, টুইটারে মঈন আলিকে নিয়ে মানহানিকর পোস্ট দেওয়ায় আমরা তসলিমা নাসরিনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছি। বিষয়টি নিয়ে আমাদের আইনজীবীদের সঙ্গে পরামর্শ করেছি।

তসলিমার বিরুদ্ধে সম্ভাব্য সবরকম আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে উল্লেখ করে প্রতিষ্ঠানটি আরও বলে, এমন বাজে আচরণ করে কোনভাবেই পার পেয়ে যেতে দিচ্ছি না আমরা।