গ’র্ভব’তী হয়েও বি’ষা’ক্ত সা’পের মুখ থেকে মালিককে বাঁ’চাতে পিছুপা হয়নি মা কুকুর

আমরা বাড়িতে অনেকেই কুকুর পুষে থাকি। কুকুর যে প্রভুভক্ত। নিজের প্রা’ণ বলি দিয়ে ফের তার প্রমাণ দিল দুই বছরের পিটবুল নং হর্ম। বিশ্বের সবচেয়ে বি’ষা’ক্ত সা’পের মুখ থেকে তার মালিককে বাঁ’চাতে নির্ভয়ে এগিয়ে যায় সে।

জানা যায়, প্রায় চার বার বি’ষা’ক্ত কো’বরা ছো’বল মারে তার গায়ে। তবু প্রা’ণ থাকা পর্যন্ত সে ল’ড়াই করে যায় সা’পটির সঙ্গে। তারপরই আস্তে আস্তে নি’স্তেজ হয়ে যায় নং।

এই ঘটনাটি ঘটেছে সেন্ট্রাল থাইল্যান্ডের পাথুম থানি অঞ্চলে।জানা গেছে, নং হর্ম গ’র্ভব’তী ছিল। তার পেটে ১০টি ছানা ছিল। তার মালিক বুনচার্ড পাপ্রোম তার ফেসবুকে বেশকিছু ছবি পোস্ট করেন।

সেখানে দেখা যায়, নং হর্মের চোয়ালে অনেকগুলো সা’পে’র ছো’বলের দাগ। নং হর্ম শেষ নিঃ’শ্বাস পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে গিয়েছিল এটাই তার প্রমাণ।

এ ব্যাপারে বুনচার্ড জানান, সা’পের মুখ থেকে আমাকে আর আমার সন্তানকে র’ক্ষা করেছে নং হর্ম। তার কাছে আমি চির ঋণী থেকে গেলাম। সে নিজের জীবন দিয়ে সা’প’টিকে মে’রেই শেষ নিঃ’শ্বাস ত্যা’গ করে।

এদিকে কোবরা সা’পকে বি’ষধ’র সা’পের রাজা বলা হয়ে থাকে। এরা যে পরিমাণ বি’ষ থলিতে জমা রাখে তাতে মানুষ তো মা’রা যায়-ই, পূর্ণ বয়স্ক একটি হাতিরও মৃ’ত্যু হয় মাত্র তিন ঘণ্টার মধ্যে।