ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে জি’হা’দের আহ্বান, ছাত্রদলকর্মী গ্রে’প্তার

হেফাজত নেতা আল্লামা মামুনুল হককে গ্রে’প্তারের প্রতিবাদ জানিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে জিহাদের আহ্বান করায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আ’ইনে করা মা’মলা’য় মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলা থেকে শাহীন বিপ্লব (২১) নামে এক যুবককে গ্রে’প্তার করেছে পু’লি’শ।

সোমবার (১৯ এপ্রিল) রাতে উপজেলার বালিদিয়া ইউনিয়নের বড়রিয়া গ্রামের পশ্চিমপাড়ায় নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রে’প্তার করা হয়। এর আগে ওই দিন সন্ধ্যায় মহম্মদপুর থানায় শাহীনের বিরুদ্ধে পু’লি’শ বাদী হয়ে মা’মলা’টি দায়ের করে।

গ্রেপ্তার শাহীন বড়রিয়া গ্রামের শাহজাহান সর্দারের ছেলে। তিনি ফরিদপুর সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির ছাত্র ও ছাত্রদলের একজন কর্মী বলে জানা গেছে।

মা’মলা’র বিবরণে জানা গেছে, হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর কমিটির সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মামুনুল হককে গ্রে’প্তা’রের বিরোধিতা করে নিজের ফেসবুক টাইমলাইনে স্ট্যাটাস দেন।

স্ট্যাটাসে শাহীন তার ভাষায় বলেন ‘আল্লামা মামুনুল হককে গ্রে’প্তার করো নাই, হৃদয়ে আ’ঘা’ত করেছো। আর ছাড় দেওয়া হবে না, এতো বড় দুঃ’সাহস তোমাদের কে দিয়েছে? এখন শুধু একটি জি’হা’দের ঘোষণার অপেক্ষায় আছি।

ইনশাল্লাহ সেই যু’দ্ধে’ শামিল হবো। ইসলামের জন্য যদি শ’হীদ হই আলহামদুলিল্লাহ। আমি আমার জাতীয়তাবাদী দলসহ বাংলাদেশের সকল ধর্মপ্রাণ সংগঠনের মানুষদেরকে রাজপথে নেমে আসার আহ্বান জানাচ্ছি। পেছনে কোনো দল বা ব্যক্তি কি বলল সেটা না ভেবে ইসলাম প্রতিষ্ঠার জন্য জি’হাদে’র জন্য প্রস্তুতি নিন, মনে রাখতে হবে মুসলমানদের বিজয়ের সময় এসেছে’।

পুলিশের ভাষ্যমতে, শাহীন বিপ্লব ১৯ এপ্রিল রাত ৯টা ৪৯ মিনিটে ফেসবুকে জি’হা’দের আহ্বান প্রকাশ ও প্রচার করেন। তার আহ্বানে সাড়া দিয়ে কয়েক হাজার উ’চ্ছৃঙ্খল লোকজন জমায়েত হয়। পরিস্থিতির অবনতির আশঙ্কা ও উসকানিমূলক বক্তব্য দিয়ে ফেসবুকের মাধ্যমে মি’থ্যাচার করেছেন শাহীন। এ জন্য তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আ’ইনে মা’ম’লা করা হয়েছে।

মহম্মদপুর থানার ও’সি তারক বিশ্বাস গণমাধ্যমকে জানান, পু’লি’শের দায়ের করা ডিজিটাল নিরাপত্তা আ’ইনের মা’মলায় শাহীনকে গ্রে’প্তার করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) তাকে আ’দা’লতে পাঠানো হবে।