শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম থাকলে এ সময় কী করবেন?

শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম থাকলে করোনার প্রভাব মারাত্মক হতে পারে বলে মত বিশেষজ্ঞদের। তাই এ সময় শরীরের ইমিউন সিস্টেম বুস্ট করতে দরকার পুষ্টিকর সব খাবার খাওয়া। সেইসঙ্গে জীবনযাত্রায় পরিবর্তন আনা জরুরি।

শুধু করোনাভাইরাস নয়, অন্য জীবাণুর আক্রমণ থেকে বাঁচতেও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর দরকার। প্রতিদিনের অনিয়মিত জীবনযাত্রার প্রভাবে শরীরের এই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমতে শুরু করে।

বিভিন্ন ধরনের ক্ষতিকর ভাইরাস বা ব্যাকটেরিয়াকে ঠেকানোর জন্য এ সময় কী করলে ইমিউন সিস্টেম বুস্ট হবে তা অনেকেরই অজানা। শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম থাকলে এ সময় কী করবেন জেনে নিন

চিকিৎসকদের মতে, শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে প্রচুর পরিমাণে পানি খাওয়া উচিত। বিভিন্ন ভাইরাস-ব্যাকটেরিয়া মূত্রের মাধ্যমে শরীর থেকে নির্গত হয়। ডিটক্স ওয়াটার পান করার মাধ্যমেও শরীরের বিভিন্ন বর্জ্য পদার্থ দূর করা যায়। আর পর্যাপ্ত পানির খাওয়ার অভাবেই শরীরের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা কমতে শুরু করে।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে নিয়মিত ৭-৮ ঘণ্টা ঘুমাতে হবে। অনেকেই সারারাত জেগে থাকেন আর ভোর থেকে দুপুর পর্যন্ত ঘুমান। দিনের ঘুম কখনও গভীর হয় না। তাই বিশেষজ্ঞদের মতে, রাতে একটানা ৭-৮ ঘণ্টা গভীর ঘুমের উপকারিতা অনেক। এতে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে।

করোনাকালে অনেকেই আতঙ্কের মধ্যে সময় পার করছেন। এর থেকে সৃষ্টি হচ্ছে মানসিক চাপ, যা শরীরের জন্য ক্ষতিকর। মানসিক চাপ থেকেও শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমতে পারে বলে জানাচ্ছেন চিকিৎসক। ক্যান্সারের মতো মারণব্যাধিও হতে পারে মানসিক চাপ থেকে।

ধূমপান স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকারক তা সবারই জানা। তবুও ধূমপানে আসক্ত অনেক মানুষ। মহামারির শুরু থেকেই চিকিৎসকরা ধূমপানকে এড়িয়ে চলতে বলছেন। ধূমপানের ফলে হার্ট ও ফুসফুস ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ধূমপানে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও কমতে থাকে।