ফল খেয়ে পানি পান করলে শরীরের যেসব ক্ষতি হয়

ফল খাওয়ার পর পানি খেতে হয় না- এমনটা নিশ্চয়ই বড়দের কাছ থেকে শুনেছেন! তবে কখনও কখনও ফল খাওয়ার পর অনেকেই পানি খেয়ে থাকেন। তবে জানেন কি, কিছু কিছু ফল খাওয়ার পর পানি পান করলে হীতে বিপরীত ঘটতে পারে শরীরে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, যেসব ফলে পানির পরিমাণ বেশি; সেসব ফল খাওয়ার পরপরই পানি পান করা উচিত নয়। যেমন- তরমুজ, বাঙ্গি, খরমুজ, শশা, কমলালেবু, আনারস, বাতাবি লেবু বা স্ট্রবেরির মতো ফল খেয়ে কখনোই পানি পান করবেন না।

এর কারণ হলো পানিসমৃদ্ধ এসব ফল তৃষ্ণা নিবারণের জন্য যথেষ্ট। তবুও ফল খাওয়ার পরেও তৃষ্ণার্ত বোধ করলে কমপক্ষে ৩০ মিনিট পর পানি পান করতে হবে। চিকিৎসক এবং ডায়েটিশিয়ানরা অবশ্য ফল এবং পানির মধ্যে ৪০-৫০ মিনিট ব্যবধানের পরামর্শ দেন।

এবার জেনে নিন ফল খেয়ে পানি পান করলে শরীরের যেসব ক্ষতি হয়-

পিএইচ মাত্রা কমে:

ফল খাওয়ার পর পানি পানি করলে হজমে গোলমাল দেখা দিতে পারে। কারণ যেসব খাবারে পানি থাকে; তার সঙ্গে যদি পানি খাওয়া হয় তাহলে পিএইচ মাত্রা কমে যায়। ফলে তা হজমে ব্যাঘাত ঘটায়।

ফাইবার ও পানি থাকার কারণে পেঁপে বা বাঙ্গিজাতীয় ফল খালি পেটে খেতে নিষেধ করে বিশেষজ্ঞরা। এর ফলে পিএইচ মাত্রা কমে যেতে পারে।

পুষ্টিবিদদের মতে, খালি পেটে এসব ফল খেলে তা অন্ত্রে পৌঁছনোর আগেই খাদ্যনালীতেই পরিপাক শুরু হয়ে যায়।

পরবর্তীতে আবার পানি পান করলে শরীরের পিএইচ মাত্রা কমিয়ে দিয়ে তা হজমে ব্যাঘাত ঘটায়। এতে খাবার হজম না হওয়ায় শরীরে পুষ্টির জোগান দেওয়ার বদলে তা টক্সিনে পরিণত হয়।

ডায়রিয়া হতে পারে:

শশা বা তরমুজ যদি সঠিক নিয়ম মেনে খাওয়া হয়; তাহলে তা হজমে সাহায্য করে। ফলে কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা থাকলে এই সব ফল মলত্যাগে সাহায্য করে। যদি এসব ফলের সঙ্গে পানি পান করা হয়; তাহলে সেই প্রক্রিয়া অতি সক্রিয় হয়ে গিয়ে ডায়রিয়া হতে পারে।

পেট ফুলে যায়:

ফল খাওয়ার পরপরই পানি পান করলে তা হজম না হওয়ার ফলে পেট ফুলে যেতে পারে। কারণ ফল খাওয়ার পর পানি পান করলে এটি পেটে গিয়ে কার্বন-ডাই-অক্সাইড তৈরি হতে শুরু করে। যা গ্যাস এবং পেট ফাঁপা হতে পারে।