সন্তানদের ঈদ পোশাকের ব্যাগ নদীতে পড়তেই ঝাঁপ বাবার, অতঃপর

ঈদে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঝুঁকি নিয়ে বাড়ি ফিরছে বেপরোয়া মানুষ। মানছে না কেউ করোনা বিধিনিষেধ। স্বাস্থ্যবিধির তোয়াক্কা করছে না কেউ। করোনা মহামারী নিয়ন্ত্রণে ঈদযাত্রা ঠেকাতে স্থানীয় প্রশাসন ও পুলিশের পাশাপাশি বিজিবি মোতায়েন করার পরও থামেনি বাংলাবাজার-শিমুলিয়া ও পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে ঘাটমুখী জনস্রোত।

দূরপাল্লার বাস বন্ধ থাকলেও ঘরমুখী মানুষ প্রাইভেট কার, মাইক্রোবাস, মোটরসাইকেল ও পণ্য পরিবহনের গাড়িতে ঝুঁকি নিয়ে বাড়ি ফিরছেন। এ ছাড়া বৃষ্টিতে ঘরমুখো মানুষের ভোগান্তি পোহাতে হয়েছে। অনেকেই কাকভেজা হয়েই বাড়ি ফিরেছেন। এর মধ্যে কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনার মুখোমুখিও হতে হচ্ছে ঘরমুখীদের।

এর মধ্যে হাজারো মানুষের ভিড়ে আতাউর মিয়া ফেরিতে উঠতে পারলেও সন্তানদের জন্য কেনা ঈদের পোশাকের ব্যাগটি হাত থেকে পানিতে পড়ে যায়। যে ঘটনা ভাইরাল হয়েছে নেট দুনিয়ায়।

দেখা গেছে, সন্তানদের ঈদের পোশাক থাকা ব্যাগটি উদ্ধার করতে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ফেরি থেকে পানিতে ঝাঁপ দেন আতাউর মিয়া। আজ বুধবার লৌহজং উপজেলার শিমুলিয়া এ ঘটনা ঘটে। পানিতে সাঁতার কেটে ব্যাগ নিয়ে তীরে উঠতে পারছিলেন না আতাউর। স্থানীয় একজন জেলে নৌকা চালিয়ে তাকে উদ্ধার করেন। তীব্র রোদে ৪ ঘণ্টা অপেক্ষমান ক্লান্ত আতাউর তীরে এসে কান্নায় ভেঙে পড়েন।