শৈশবে ঈদে আমিরের আগ্রহ ছিল সালামিতে

বলিউডের তিন খান শাহরুখ, সালমান, আমির প্রতিবার অন্য রকমভাবে ঈদ উদ্‌যাপন করেন। তাঁদের মধ্যে আমির খান কিছুটা সাদামাটাভাবে দিনটি পালন করেন। বাকি দুই খানের ঈদ উদ্‌যাপনে থাকে বেশ জাঁকজমকতা। তাঁদের বাড়ির সামনে হাজার হাজার ভক্ত ভিড় করেন। সালমান ও শাহরুখ অবশ্য তাঁদের ভক্তদের নিরাশ করেন না। তাঁরা বাড়ির বাইরে এসে ভক্তদের কাছে পৌঁছে দেন ঈদের শুভেচ্ছাবার্তা। তবে করোনার কারণে গতবারের মতো এবারও ঘরোয়া ভাবে ঈদ উদ্‌যাপন করবেন তাঁরা।

এই তিন খানেরই কৈশোরের ঈদ ছিল একেবারে অন্য রকম। তখন তাঁরা কেউই আজকের তারকা নন। বিভিন্ন সাক্ষাৎকারে তাঁরা বলেছেন শৈশবের ঈদ উদ্‌যাপনের স্মৃতি। বলিউডের দুই খান শাহরুখ খান ও সালমান খানের ঈদ উদ্‌যাপন নিয়ে ভক্তদের থাকে বাড়তি উন্মাদনা। কিন্তু আমির একেবারেই অন্য রকম। ঈদের দিন মায়ের কাছে দিনটি কাটাতেই ভালোবাসেন এই অভিনেতা। মিস্টার পারফেকশনিস্টের শৈশবের ঈদের সুন্দর মুহূর্তগুলো থাকল আজ।

ঈদের দিন ভোরে সাদা পাঞ্জাবি ও কুর্তা পরে মায়ের বাসায় চলে যান আমির খান। তবে শাহরুখ আর সালমানের মতো ভক্তদের সময় দিতে হয় না। তাই পারিবারিকভাবেই ঈদের দিনটি উদ্‌যাপন করেন এই তারকা। প্রায় চার বছর আগে ঈদের দিন এক সংবাদ সম্মেলনে আমির তাঁর ছোটবেলার এক মজার কাহিনি বলেছিলেন।

এই বলিউড তারকা বলেছিলেন, ‘ছোটবেলায় ঈদের থেকে আমাদের কাছে মূল আকর্ষণ ছিল “সালামি”। সালামি পাওয়ার জন্য আমরা বড়দের বারবার সালাম করতাম। দিনশেষে গুনতাম কে, কত টাকা পেয়েছি। আর সেই টাকা দিয়ে ঘুড়ি, আর মাঞ্জা দেওয়া সুতা কিনতাম। এখন আজাদকে (ছেলে) ঈদি পাওয়ার প্রশিক্ষণ দিচ্ছি।

আজাদকে ঈদে কত ‘সালামি’ দেন আমির? এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেছিলেন, ‘আমি দুই টাকার মতো সালামি পেতাম। আমার ছেলেকেও দুই টাকাই দিই। কারণ প্রয়োজনের তুলনায় বেশি পেলে স্বভাব নষ্ট হবে। আগামী ডিসেম্বরে বড়দিনে আমির খান নিয়ে আসছেন তাঁর বহুল প্রত্যাশিত ছবি ‘লাল সিং চাড্ডা’। ছবিটি টম হ্যাংকস অভিনীত ‘ফরেস্ট গাম্প’-এর হিন্দি রিমেক। এই ছবিতে তাঁর সঙ্গে দেখা যাবে কারিনা কাপুর খানকে।