ঘুষ নিয়ে করোনার টিকা দেওয়ায় ৯ কর্মকর্তা বরখাস্ত

পাকিস্তানে ঘুষ নিয়ে করোনার টিকা প্রয়োগের পাশাপাশি বিভিন্ন টিকাদানকেন্দ্রে নানা অনিয়মের অভিযোগে লাহোরের ১৮ জন কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে। তাঁরা লাহোর মেট্রোপলিটন করপোরেশনসহ স্বাস্থ্য ও অন্যান্য বিভাগের কর্মকর্তা। গত সোমবার তাঁদের বরখাস্ত করে সিটি ডিস্ট্রিক্ট প্রশাসন। বেশির ভাগ অভিযোগ এসেছে লাহোরের পাকিস্তান কিডনি অ্যান্ড লিভার ইনস্টিটিউট এবং এক্সপো কেন্দ্রগুলো থেকে। ঘুষের দায়ে বরখাস্ত করা হয় ৯ জনকে।

লাহোর কমিশনার অবসরপ্রাপ্ত ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ উসমান পাকিস্তানের গণমাধ্যম ডনকে বলেন, ‘আমাদের অভিযোগের পর এ পদক্ষেপ নেওয়া হলো। লাহোরের ডিসি জেলার স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের প্রশাসক। তিনি তদন্ত করিয়ে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় ১৮ জনকে বরখাস্ত করেছেন।’ মোহাম্মদ উসমান লাহোর মেট্রোপলিটন করপোরেশনের প্রধান। তিনি আরও বলেন, বরখাস্ত ব্যক্তিরা সবাই জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের, লাহোর মেট্রোপলিটন করপোরেশনের কেউ নেই।

তবে লাহোরের ডিসি বলছেন ভিন্ন কথা। তিনি বলছেন, বরখাস্ত ব্যক্তিদের মধ্যে স্বাস্থ্য, এমসিএলসহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা রয়েছেন। ডিসি মুদাচ্ছির রিয়াজ মালিক সাংবাদিকদের বলেন, ‘ওই কর্মকর্তারা ঘুষ নিয়ে লোকজনকে টিকা দিচ্ছিলেন। বেশির ভাগ অভিযোগ এসেছে পাকিস্তান কিডনি অ্যান্ড লিভার ইনস্টিটিউট কেন্দ্র থেকে। কিছু এসেছে জোহার টাউনের এক্সপো সেন্টার থেকে। এ ঘটনা তদন্ত করে দেখতে বলা হয়েছে।’

ন্যাশনাল কমান্ড অ্যান্ড অপারেশন সেন্টারকে উদ্ধৃত করে আরি নিউজ জানায়, পাকিস্তানে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ২ হাজার ৫৬৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। আর মৃত্যু হয়েছে ১৩৫ জনের।