রোজিনাকে মুক্তি দিতে মার্কিন সাংবাদিক নেতাদের আহ্বান

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল প্রেসক্লাব ও ন্যাশনাল প্রেসক্লাব জার্নালিজম ইনস্টিটিউট সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে গ্রেপ্তারের নিন্দা জানিয়েছে। একই সঙ্গে তাঁকে মুক্তি দিতে তারা আহ্বান জানিয়েছে। স্থানীয় সময় গতকাল বুধবার এই আহ্বান জানিয়ে বিবৃতি দেওয়া হয়। এতে বাংলাদেশের সম্পাদক পরিষদের দেওয়া বিবৃতির উদ্ধৃতি উল্লেখ করা হয়। যে বিবৃতিতে এই ঘটনাকে বাংলাদেশের সাংবাদিকতার ইতিহাসের ‘কালো অধ্যায়’ হিসেবে অভিহিত করা হয়। একই সঙ্গে ওই বিবৃতিতে এই ঘটনাকে বাংলাদেশের সংবাদমাধ্যমের অস্তিত্বের জন্য হুমকি হিসেবে চিহ্নিত করা হয়।

বিবৃতিতে কমিটি টু প্রটেক্ট জার্নালিস্টসের বরাতে বলা হয়, রোজিনা ইসলাম প্রথম আলোর অনুসন্ধানী সাংবাদিক। তাঁর বিরুদ্ধে ঔপনিবেশিক আমলের একটি আইনে মামলা দেওয়া হয়েছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের করা মামলায় রোজিনার জামিন আবেদনের ওপর শুনানির জন্য আজ বৃহস্পতিবার দিন ধার্য রয়েছে। ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ভার্চ্যুয়ালি এই শুনানি হওয়ার কথা। রোজিনা বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল প্রেসক্লাবের প্রেসিডেন্ট লিসা নিকোল ম্যাথিউস ও ন্যাশনাল প্রেসক্লাব জার্নালিজম ইনস্টিটিউটের প্রেসিডেন্ট অ্যাঞ্জেলা গ্রিলিং কিন বিবৃতিতে বলেছেন, আন্তর্জাতিক সংকটের সময় জনস্বার্থে স্বাধীন সাংবাদিকদের পর্যবেক্ষণের ভূমিকা যেকোনো সময়ের চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু বাংলাদেশের সরকারি কর্মকর্তারা একজন সাংবাদিকের কণ্ঠরোধের চেষ্টা করছেন, যা বিশ্ববাসীর কাছে সেই বার্তাই দিচ্ছে যে তাঁরা কিছু লুকানোর চেষ্টা করছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল প্রেসক্লাব ১৯০৮ সালে প্রতিষ্ঠিত। এটি বিশ্বের নেতৃত্বস্থানীয় সাংবাদিক সংগঠন হিসেবে পরিচিত। এই সংগঠনের সদস্যসংখ্যা তিন হাজার। তাঁরা শীর্ষস্থানীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধি। সংগঠনটি যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের সর্বত্র সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতার পক্ষে সব সময় সোচ্চার ভূমিকা রেখে আসছে।

ন্যাশনাল প্রেসক্লাব জার্নালিজম ইনস্টিটিউট একটি শীর্ষস্থানীয় অলাভজনক সংগঠন হিসেবে সারা বিশ্বে পরিচিত। তারা স্বাধীন ও মুক্ত সাংবাদিকতা, সাংবাদিকদের পেশাগত দক্ষতা-মান বৃদ্ধিসহ সাংবাদিকতাবিষয়ক বিভিন্ন খাত নিয়ে কাজ করে।