বিয়ের দিন বউকে কাঁদতে দেখে হাউ মাউ করে কেঁদে ফেলল নতুন বর, ঝড়ের গতিতে ভাইরাল ভিডিও

সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রত্যেকদিন আমর’া বিভিন্ন ধরনের ভিডিও দেখতে পাই। এগু’লির মধ্যে কিছু আসল ভিডিও আবার কিছু গ্রা’ফি’ক্স নির্মিত। অনেকেই আবার নিজেদের জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি করতে সোশ্যাল মিডিয়াকে ব্যবহার করে থাকে।

নিজেদের মধ্যে থাকা সু’প্ত প্রতিভা সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে জনসমাজের সামনে এনে তারা জন’প্রিয়তার শীর্ষে পৌঁছে যান। দিনের পর দিন সোশ্যাল মিডিয়ার জনপ্রি’য়তা বাড়ছে। যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি সাধনের সোশ্যাল মিডিয়ার অনেক বড় ভূমিকা থাকার পাশাপাশি ক্যা’রি’য়ার করতেও সাহায্য করছে সোশ্যাল মিডিয়া। ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, ইউটিউব সহ বেশ কিছু অ্যাপ্লি’কেশন রয়েছে,

যেখানে ভিডিও বানিয়ে পো’স্ট করতে পারলে জন’প্রি’য়তা অ’র্জন করে নেওয়া যায়। তবে ভিডিওর কন’টে’ন্ট ’হতে হবে বেশ ভালো। তবে অনেক সময় দেখা যায় এডিট না করেই কোন কোন ভিডিও বেশ জন’প্রিয়তা অ’র্জন করে নেয়।

বিয়ের সি’জিন মানেই বিয়ের ভিডিও ভাইরাল হবে না তা কী করে সম্ভব। বিয়ে বাড়িতে বিবাহ অনুষ্ঠানের শুধু মুহূর্তগু’লো অনেকেই ক্যামেরায় ব’ন্দী করে রাখে। সেই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় পো’স্ট করলে লাভ রি’য়্যাক্ট এ ভরে যায়। তবে বিয়ে বাড়িতে সব সময় যে রোমা’ন্টিক ঘটনা ঘটছে এমন কোন কথা। কখনো কখনো এমন কিছু ঘটনা ঘটতে দেখা যায়, যা দেখে হাসতে হাসতে পেটে ব্যথা হয়ে যাবার জোগাড়।

এমনই ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে। কনে বিদায় করার আগে আশী’র্বাদের অনুষ্ঠান। সেই অনুষ্ঠানে বসে রয়েছেন বর বউ। আশেপাশে প্রচুর আ’ত্মীয়-স্বজন। সেখানে ঘটলো বিপত্তি। দীর্ঘদিনের চেনা-পরিচিত বাড়িঘর আত্মীয় পরিজন সবা’ইকে ছেড়ে শশুড়বাড়ি যেতে গেলে যে কোন মেয়েরই প্রচন্ড ক’ষ্ট হয়।তাই আশী’র্বাদে কনে বিদায় কালে কমবেশি আ’ত্মীয় পরিজন সবাইকেই কাঁ’দ’তে দেখা যায়।

কিন্তু নববধূর কান্না দেখে এবার আর চোখের জল ধরে রাখতে পারলোনা নতুন বর। সেও চো’খের জ’ল মু’ছতে মুছতে কাঁদতে শুরু করল। তার এই অঝোর কান্না দেখে আ’ত্মীয়-স্বজ’নরা হেসে কূলকিনারা পাচ্ছেন না। সামলাবেন কাকে বর নাকি কনে? এই নিয়ে বিয়ে বাড়িতে হুলু’স্থুল বেধে যায়। জিৎ ভৌমিক নামক জনৈক ব্যক্তি নিজের ফেস’বুক একা’উন্ট থেকে এই ভিডি’ওটি পো’স্ট করেছেন।

ভিডিওটি সামনে আছে তুমুল ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। বউয়ের পাশাপাশি বরকে আ’শী’র্বাদ করার সময়ে সে কা’ন্নাকাটি শুরু করে দেয়। ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় হাসির খো’রাক জুগিয়েছে এ কথা আর বলার অ’পেক্ষা রাখে না। ইতিমধ্যে প্রায় তিন লাখের কাছাকাছি মানুষ ভিডিওটি দেখে নেওয়ার পাশাপাশি, প্রচুর সংখ্যক লা’ইক পড়েছে।