আজ গণপরিবহন নিয়ে আসতে পারে সুখবর!

চলমান লকডাউন শেষ হচ্ছে নাকি আরো এক সপ্তাহ বাড়ছে, তা জানা যাবে আজ। করোনা নিয়ে সরকারের পরামর্শক কমিটি লকডাউন এক সপ্তাহ বাড়ানোর পক্ষে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে এক সপ্তাহ লকডাউন বাড়ানোর প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে বলেও জানা গেছে। তবে দায়িত্বশীল সূত্রে জানা গেছে, গতকাল শনিবার বিকেল পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে কোনো সিদ্ধান্ত আসেনি।

এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসবে আজ রবিবার। বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা সত্যি প্রমাণ করে ঈদকেন্দ্রিক চলাচলকে কেন্দ্র করে আবারও বাড়তে শুরু করেছে করোনা সংক্রমণ। এদিকে আরো এক সপ্তাহ সময় বাড়িয়ে ভারতের সঙ্গে আগামী ৩১ মে পর্যন্ত সীমান্ত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের একজন কর্মকর্তা কালের কণ্ঠকে জানান, পরিস্থিতি বিবেচনা করেই লকডাউন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত আসার সম্ভাবনা বেশি। একই বিভাগের অন্য একটি সূত্র জানায়, দূরপাল্লার বাস বন্ধ থাকায় সাধারণ মানুষের কষ্ট হচ্ছে, খরচ বাড়ছে, পরিবহন শ্রমিকরা খারাপ অবস্থায় আছেন। এসব বিষয় যদি সরকারের উচ্চ পর্যায় থেকে বিবেচনায় নেওয়া হয় তবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে দূরপাল্লার বাসসহ অন্যান্য গণপরিবহন খুলে দেওয়া হতে পারে। সিদ্ধান্ত এলেই প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে।

এ বিষয়ে মন্তব্য জানতে চাইলে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন সাংবাদিকদের বলেছেন, লকডাউন নিয়ে পর্যালোচনা চলছে। সিদ্ধান্ত আসেনি। সিদ্ধান্ত আসামাত্র গণমাধ্যমকে জানানো হবে।

দেশে গত বছরের ৮ মার্চ প্রথম করোনা রোগী শনাক্তের ঘোষণা দেয় সরকার। করোনায় মৃত্যুর প্রথম ঘোষণা আসে ১০ দিন পর ১৮ মার্চ। এরপর আতঙ্কে থাকা দেশবাসীকে সংক্রমণ মুক্ত রাখতে গত বছর ২৬ মার্চ প্রথম সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছিল, যা কয়েক দফা বাড়িয়ে টানা ৬৬ দিন চলে। এরপর ধীরে ধীরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসতে শুরু করলে প্রায় সব কিছু স্বাভাবিক হয়ে ওঠে। কিন্তু চলতি বছরের মার্চ থেকে আবারও করোনা সংক্রমণ বাড়তে শুরু করে।