শুক্রবার করোনা পজিটিভ, শনিবার নেগেটিভ সুজন

করোনাভাইরাস পজিটিভ শনাক্ত হওয়ার মাত্র একদিনের মাথায় নেগেটিভ হয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) অন্যতম পরিচালক ও সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাহমুদ সুজন। নমুনা দেওয়ার পর পিসিআর টেস্টে গত শুক্রবার করোনা পজিটিভ শনাক্ত হন তিনি। এর পর তিনি আইসোলেশনে চলে যান। শনিবার আবারও নমুনা পরীক্ষা করা হলে সেই ফল নেগেটিভ এসেছে। অর্থাৎ পরীক্ষায় একদিনেই করোনা থেকে মুক্তি পেলেন সুজন!

এ বিষয়ে গণমাধ্যমকে সুজন বলেন, ‘শুক্রবারের রিপোর্টটি ঠিক ছিল না। ওই রিপোর্টটি ছাড়া প্রতিবারই নেগেটিভ এসেছে। অর্থাৎ সেটি ফলস রিপোর্ট এসেছিল। শনিবার দ্বিতীয় পরীক্ষায় নেগেটিভ হই। আমি তবু সতর্ক আছি, আপাতত বিশ্রাম নেব। এখন আমার কাছে মনে হচ্ছে আমি মুক্ত। সবাই দোয়া করবেন।’

গত কয়েক দিন ধরে ঠাণ্ডাজনিত কারণে অসুস্থতাবোধ করছিলেন জাতীয় দলের টিম লিডার। ওই সময় থেকে নিজেকে অন্যদের কাছ থেকে সরিয়ে রেখেছেন। সাবধানতাবশত টিম হোটেলে যাননি। টাইগারদের অনুশীলনের সময়ও মাঠে আসেননি।

শুক্রবার দলের সঙ্গে যোগ দেওয়ার কথা ছিল খালেদ মাহমুদের। ঠাণ্ডাজনিত অসুস্থায় জৈব সুরক্ষা বলয়ে এদিন যোগ দেননি তিনি। সুজনের অনুপস্থিতিতে শ্রীলংকার বিপক্ষের সিরিজে অন্য কাউকে দায়িত্ব দেওয়া হবে না। এ বিষয়ে বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান আকরাম খান জানান, ঘরের মাঠে সিরিজ বলে সুজনের জায়গায় অন্য কাউকে দায়িত্ব দেওয়া হবে না।

প্রসঙ্গত আজ রোববার থেকে শুরু হচ্ছে স্বাগতিক বাংলাদেশ ও সফরকারী শ্রীলংকার মধ্যকার তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ, যা শেষ হবে আগামী ২৮ মে। সিরিজের জন্য গত ১৮ মার্চ থেকে জৈব সুরক্ষা বলয়ে আছে বাংলাদেশ দল। এরই মধ্যে লংকা শিবিরে করোনার হানা পড়েছে। আক্রান্ত হয়েছেন দলের দুই ক্রিকেটার ও বোলিং কোচ চামিন্দা ভাস।